ফেসবুক অ্যাডভার্টাইজিং সার্ভিস

বর্তমান আধুনিক বিজনেসে সোশ্যাল মিডিয়াগুলোই প্রধান ভুমিকা পালন করে থাকে। এবং ফেসবুক তার মধ্যে প্রধান। এখন আর এটা অস্বীকার করার কোন উপায় নাই যে, ফেসবুক এখন আমাদের জীবনের একটা বড় অংশ হয়ে গেছে, এটার মাধ্যমে অনেকে উপকারিতা পাচ্ছে এটাও সত্যি কথা, তাই ফেসবুকের মাধ্যমে যারা বিক্রয় করতে চান তাদের জন্য উচিৎ হবে, ফেসবুকে কাজ করা ফেসবুকের মত করে, মানে হচ্ছে ফেবুকের নিয়ম বুঝে। আর “ইয়াপ্পোবিডি” আপনার হয়ে সেই কাজটায় করে থাকে। তাই প্রমোট, বুস্ট সহ যেকোন ধরনের ফেসবুক মার্কেটিং সার্ভিস এর জন্য যোগাযোগ করুন আমাদের সাথে।

মার্চ ২০২০ এর পরিসংখ্যান অনুযায়ী বাংলাদেশের ফেসবুক ব্যবহারকারীর সংখ্যা প্রায় ৩৭,৯১২,০০০ আর এই সংখ্যাটি প্রতিনিয়ত দ্রুততার সাথে বেড়েই চলেছে। বর্তমানে মোট দৈনিক সক্রিয় ফেসবুক ব্যবহারকারীর সংখ্যা ৭২৮ মিলিয়ন এবং ১.৯ বিলিয়ন মাসিক সক্রিয় ব্যবহারকারীর পেরিয়ে গেছে। আর ফেসবুকের এই বিপুল জনপ্রিয়তা যেকোন ব্যবসার বিজ্ঞাপনের জন্য একটি যুগান্তকারী সম্ভাবনার দিক উন্মোচোন করেছে। ফেসবুক বিজ্ঞাপনের মাধ্যমে আন্তর্জাতিক বা স্থানীয় ব্যবসায় প্রচার করা এখন একটি ট্রেন্ড হয়ে দাড়িয়েছে এবং বর্তমানে এমন একটিও ব্যবসা নেই যেগুলো তাদের ব্যবসার সফলতা ফেসবুকে প্রচার এবং বিজ্ঞাপন ছাড়া ভাবতে পারে।

Facebook Page Service

Business Page

৭৯৯০
  • Complete About Section
  • Unique Story Text (Minimum 1500 words)
  • Professional Quality Logo
  • Professional Quality FB Cover
  • Chatbot Automation
  • Call To Action Button
  • 10000 Page Like
Recommended

Basic Page

৩৯৯০
  • Complete About Section
  • Unique Story Text (Minimum 1000 words)
  • Professional Quality Logo
  • Professional Quality FB Cover
  • Chatbot Automation
  • Call To Action Button
  • 5000 Page Like

আমাদের প্রি-বুস্টিং অ্যাড ম্যাটেরিয়ালস এর আওতাই কোন প্রকার ভ্যাট বা হিডেন চার্জ অন্তর্ভুক্ত নাই। এবং ফেসবুক অ্যাডের খরচ এর সাথে কোন সম্পৃক্ততা নেই।

DeshiIT-এর ফেসবুক বিজ্ঞাপন প্রাইসিং কনসেপ্ট

সার্ভিস চার্জঃ

প্রথমেই আসি সার্ভিস চার্জে, কারণ আমাদের চার্জ অন্য অনেক কোম্পানি বা এজেন্সির তুলনায় আপনার কাছে সঙ্গত কারণেই বেশি মনে হতে পারে। আমরা প্রতি ডলার সাধারণত ১৫০ টাকা করে চার্জ করি (জানুয়ারি-২০২৩)। তবে আপনার পেইজ কোয়ালিটি, ব্যবসায়ের ধরণ, বাজেট, আপনার পোস্টের কোয়ালিটি, এবং আপনার Understanding এর উপর ভিত্তি করে তা অল্প কিছু কম হতে পারে।

সর্বনিম্ন কত খরচে অ্যাড দিতে পারবেন?

আমাদের কাছ থেকে অ্যাড বা বুস্টিং সার্ভিস নিতে হলে আপনাকে সর্বনিম্ন ৩৫ মার্কিন ডলার (35 USD) খরচ করতে হবে। অর্থাৎ হিসাবটা এমন হবে ৩৫×১৫০= ৫,২৫০/- টাকা (বাংলাদেশী টাকায়)

কেন আমাদের চার্জ বেশি?

আমরা শুধুমাত্র ইন্টারন্যাশনাল ক্রেডিট কার্ড ব্যবহার করে ফেসবুক ক্যাম্পেইন করি। সেক্ষেত্রে সবার জন্য খরচ প্রতি ডলারে প্রায় ১০৫ টাকা। এটা আপনি নিজে করলেও একই পড়বে। হিসাব টা দেখে নিন- ডলার রেট স্বাভাবিকভাবে ১০৪ থেকে ১০৫ টাকা থাকে (সেপ্টেম্বর-২০২২), এর সাথে ১৫% ভ্যাট যেটা এড়ানোর কোন উপায় নেই। যার কারণে এখানেই প্রায় ১২০/- টাকার হিসাব চলে আসে।

আমরা যেহেতু ব্যবসায়িক উদ্দেশ্যে বিজ্ঞাপনের কাজ করছি সেখানে আমাদের ক্যাম্পেইন পরিচালনার জন্য খরচ এবং লাভের জন্য একটা চার্জ যুক্ত হবেই, এটাই স্বাভাবিক।

কেমন রেসপন্স পাবেন? কত লাইক পাবেন?

আমরা অত্যন্ত দুঃখিত যে, এই ব্যাপারে আমরা কোন নিশ্চয়তা দিতে পারি না। এটা তখনই সম্ভব যদি মার্কেটারের মূল লক্ষ্য উদ্দেশ্য হয় শুধুমাত্র একটা সংখ্যা। আমরা আপনার পেইজের অবস্থা, আপনার প্রোডাক্ট, তার দাম এইগুলা বিবেচনা করে আপনার জন্য টার্গেট অডিয়েন্স সেট করে এ্যাড রেডি করি। এক্ষেত্রে আমাদের নির্ভর করতে হয় ফেসবুকের মেশিন লার্নিং সিস্টেম এবং তাদের এ্যালগরিদমের উপর যা প্রতিদিন বিভিন্ন কারণে বিভিন্ন আঙ্গিকে কয়েক হাজার বার পরিবর্তিত হতে পারে। তাই আমরা সেটা নিশ্চিত করতে পারি না, তবে আমরা আমাদের সর্বোচ্চ আন্তরিকতার সাথে কাজ করি, যেন আপনি ভালো ফিডব্যাক পান। কারণ আমরা চাই আমাদের ভালো সার্ভিস এর কারণে আপনি আবার আমাদের সার্ভিস গ্রহণ করেন।

পেইজ প্রমোট বা বুস্ট করলে সেল হবে?

মার্কেটিং আর সেলস। এই দুইটা একে অপরের পরিপূরক। তবে এদের মধ্যে ব্যবধান অনেক। ফেসবুক প্রমোশনে আপনি শুধু মার্কেটিং করছেন। সেলস কিন্তু শুধু মার্কেটিং ছাড়াও আরো অনেক কিছুর উপর নির্ভর করে। যেমন- আপনার প্রোডাক্ট কতোটা আকর্ষণীয়, তার দাম কেমন, অন্য পেইজে তা কেমন দামে সেল হয়, আপনার পেইজের কোয়ালিটি, আপনার নিজের ফেইস ভ্যালু, আপনার বা আপনার ব্যবসায়ের উপর মানুষের আস্থা, আপনার পেইজের অন্যান্য পোস্ট, আপনার কাস্টমার ডিল করার দক্ষতা (মানে আপনার সেলস স্কিল), ইত্যাদি অনেক কিছুর উপর নির্ভর করে। আপনি এই ব্যাপারে আমাদের থেকে ফ্রি কনসালটেশন নিতে পারেন।

আশা করি আপনি সবকিছু বুঝেছেন। আপনি আমাদের সার্ভিস নিতে প্রস্তুত।

প্রথমে নিজের পেইজের উপস্থাপনার দিকে একটু লক্ষ্য করুন। আপনার পেইজের লোগো, কাভার, পেইজের About, Description, যোগাযোগের মাধ্যম ইত্যাদি ঠিক আছে কি’না। আপনি যখনই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন টাকা খরচ করে ফেসবুকে মার্কেটিং করবেন তখনই আপনার উল্লেখিত ব্যাপারগুলো প্রফেশনাল হওয়া অত্যন্ত জরুরী। আমাদের Pre-Boosting Ad Materials প্যাকেজে এই বেসিক বিষয়গুলো নিয়ে সার্ভিস দেয়া হয়। যেখানে নতুন উদ্যোক্তা হিসেবে আপনি অনেক কম খরচে প্রফেশনাল লোগো, কাভার ফটো এবং ডেসক্রিপশন তৈরি করিয়ে নিতে পারবেন।

কেন লোগো বা কাভার প্রফেশনাল মানের হওয়া জরুরী?

এটা আপনার সম্ভাব্য গ্রাহকদের কাছে পেইজের ফার্স্ট ইমপ্রেশন। এ দেখেই অডিয়েন্স জাজ করবে আপনার পণ্যের কোয়ালিটি কি, আপনার সার্ভিস কেমন হতে পারে, এবং আপনি কতোটা প্রফেশনাল। তাছাড়া এই খরচটা এককালীন। একবার করলেই হবে। যা আপনার প্রতিবার প্রমোট বা বুস্টকে পরোক্ষভাবে সাপোর্ট করেই যাবে।

আপনার বিগত মার্কেটিং এর অভিজ্ঞতা জানান।

উপরে উল্লেখিত সবগুলো বিষয় এর সাথে আপনি যদি একমত হয়ে থাকেন, তাহলে আশা করা যায় আপনি আমাদের দিয়েই ফেসবুক পেইজের প্রমোশন বা পোস্ট বুস্ট করাবেন। সেক্ষেত্রে দয়া করে আমাদের নিচের বিষয়গুলো জানাবেনঃ

  1. আপনার সর্বশেষ এ্যাডের রিচ কি আশানুরুপ ছিলো নাকি কমে গিয়েছিলো?
  2. গত ৬ মাসের মধ্যে কি Coupons/PayPal ব্যবহার করে কোন এ্যাড রান করেছিলেন?
  3. গত ৬ মাসের মধ্যে কি কোন এজেন্সী কে দিয়ে ১১০/- টাকা বা তার কমে প্রতি ডলারের নিচে খরচ দিয়ে কোন এ্যাড রান করিয়েছলেন?
  4.  বিগত অ্যাডের খরচ এবং সেলস রেশিও এর ভিত্তিতে আপনি কি লাভবান হ্যা/না।

এবার তাহলে শুরু করা যাক!

প্রথমেই আপনাকে সুন্দর ছবি দিয়ে একটা পোস্ট রেডি করতে হবে। ছবির সাইজ ন্যূনতম ১০৮০ x ১০৮০ বা ১২০০ x ৬২৮ রেজুলেশনের হতে হবে। ছবি রিয়েল হলে ভালো হয়, ক্যাটালগের ছবি দিতে চাইলে সফট কপি যোগাড় করে নিন। গুগল করে বা অন্য পেইজ থেকে ছবি নিবেন না। পোস্টের জন্য ২৫ অক্ষরের মধ্যে একটা টাইটেল, ৯০ অক্ষরের মধ্যে একটা ক্যাপশন দিতে হবে। ক্যাপশন সর্বোচ্চ ২৫০ অক্ষর পর্যন্ত হতে পারে। আর যদি আপনি করেন এসব কোন ধরনের ঝামেলাই পোহাতে চাচ্ছেন না সেক্ষেত্রে আমাদের Pre-Boosting Ad Materials প্যাকেজ থেকে আপনার প্রয়োজন অনুসারে যেকোন একটি পছন্দ  করতে পারেন।

আপনার প্রয়োজনে আমাদের সেবা

বিজ্ঞাপনের সফলতা নিশ্চিত করতে DeshiIT যেসব পদক্ষ্যেপ গ্রহন করে থাকে।

সম্ভাব্য গ্রাহকদের কাছে সহজেই পৌঁছানো

অন্যান্য বিজ্ঞাপন মিডিয়ার তুলনায় ফেসবুকের বিজ্ঞাপন সিস্টেম টার্গেটেড ইউজারদের নিয়ে একটি লিস্ট তৈরির সুযোগ প্রদান করে থাকে যেটি একজন সম্ভাব্য গ্রাহক সম্পর্কে আরো বেশী তথ্য সংগ্রহ করতে এবং তাদের এ্যাকটিভির উপর আরো নিয়ন্ত্রন রাখতে সহায়তা করে থাকে।

DeshiIT, আপনার প্রোডাক্ট/সেবার সম্ভাব্য গ্রাহকদের গতিবিধি এবং তাদের চাহিদার গভীরভাবে পর্যালোচনা করে। এবং সেখান থেকে কিভাবে সেলস্ জেনারেট করা যায় সেভাবেই বিজ্ঞাপনটি ডিজাইন করে থাকে।

DeshiITকিভাবে ফেসবুক অ্যাডভার্টাইজিং এর মাধ্যমে আপনার ব্যবসার সফলতা নিশ্চিত করে থাকে?

বর্তমানে প্রায় সকলেই তার ব্যবসার প্রসার ও প্রচার এর জন্য সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমগুলোকে ব্যবহার করে থাকে। কিন্তু অধিকাংশই তাদের ব্রান্ড সম্পর্কে তাদের কাস্টমারদের মনোযোগ আকর্ষণ করতে ব্যর্থ। ফেসবুকে সাধারনত দুই ধরনের অ্যাড প্রচলিত আছে একটি হলো ট্র্যাডিশনাল অ্যাড এবং অপরটি স্পনসরড স্টোরিজ।

DeshiIT আপনার সম্ভাব্য গ্রাহকদের গতিবিধীর পর্যালোচনার মাধ্যমে আপনার জন্য সঠিক ক্যাম্পেইনটি বাছাই করে অ্যাড চালু করে থাকে।

বিজ্ঞাপনে ব্যয়কৃত অর্থের সঠিক মূল্যয়নে DeshiITকি করে থাকে?

DeshiIT আপনার বিজ্ঞাপনের পিছনে ব্যয়কৃত অর্থের সর্বোত্তোম ফলাফল নিশ্চিত করতে আপনার সম্ভাব্য গ্রাহকদের ডেমোগ্রাফিক কমর্ফোট এর উপর ভিত্ত্বি করে একটি লিস্ট তৈরি করে থাকে। এবং আপনার ব্যয় সংকোচনের জন্য একটি স্মার্ট মার্কেটিং স্ট্রাটেজি প্রয়োগ করে থাকে। তাছাড়াও আপনার বিজ্ঞাপন হতে সেলস্ সক্রান্ত নতুন পুরাতন সকল ডাটা ট্র্যাক এবং অ্যানালাইসিস করে থাকে।

 

বিক্রয় নিশ্চিত করা

DeshiIT আপনার ব্যবসার বিক্রয় নিশ্চিত করতে আপনার ব্যবসার জন্য সোসাল মিডিয়ার Key point গুলো খুজেঁ বের করে সেই অনুযায়ী Advertising করে থাকে।আমাদের মার্কেটিং টিম তাছাড়াও আপনার যেকোন ব্যবসায়িক পরামর্শের জন্য সর্বদায় আপনার পাশে আছে।

 

কেনো আপনি DeshiIT হতে সেবা গ্রহন করবেন?

অবশ্যই আপনি আপনার ব্যবসার জন্য প্রতিনিয়ত স্থানীয় সম্ভাব্য গ্রাহকদের উপস্থিতি আপনার ব্যবসায়িক ওয়েব সাইটে নিশ্চিত করতে চান। এক্ষেত্রে, DeshiIT আপনার ব্যবসার গতিবিধি পর্যবেক্ষণ করে স্যোশাল মিডিয়া ট্রেন্ড এবং সার্চ-ইন্জিনকে কাজে লাগিয়ে সেই অনুযায়ী Ad Campaign- চালু করে আপনার পণ্য/সেবার সর্বোচ্চ বিক্রয় নিশ্চিত করে থাকে। DeshiIT তাদের গ্রহকদের ডিজিটাল এক্সপেরিয়েন্সের সীমাবদ্ধতার কথা মাথায় রেখে সকল ধরনের ডিজিটাল মার্কেটিং সার্ভিস গ্রাহকের হাতের নাগালে রেখেছে। একমাত্র আমরাই আপনার পণ্য/সেবা/ব্যবসাকে তুলনামূলকভাবে সর্বনিম্ন একটি বাজেটে সর্বোচ্চ ডিজিটাল এক্সপোজার নিশ্চিত করতে সক্ষ্যম। তাই আপনি যদি প্রতিযোগিতামূলকি এই ডিজিটাল ট্রেন্ড এর সাথে আপনার পণ্য/সেবার সামঞ্জস্য বজায় রাখতে চান, DeshiIT হতে Digital Marketing & Advertising Service গ্রহন হবে আপনার ব্যবসার জন্য যুগান্তকারী একটি সিদ্ধান্ত।

ফেসবুক অ্যাডভার্টাইজিং সম্পর্কে প্রশ্ন এবং তার উত্তর

ফেসবুক অ্যাডভার্টাইজিং সাধারণত পিপিসি রুলস অনুসরন করে চলে। ফেসবুকে অ্যাড প্রদর্শীত হবার পর আপনার অ্যাডে প্রতি ক্লিক প্রতি চার্জ করা হয়ে থাকে।

ফেসবুক অ্যাড ক্যাম্পেইন চালু করার প্রথম ধাঁপ হলো আপনার একটি ফেসবুক অ্যাড ম্যানেজার অ্যাকাউন্ট প্রয়োজন হবে।

বর্তমানে যেকোন ধরনের ব্যবসার প্রচার ও প্রসার ফেসবুক অ্যাড ছাড়া ভাবা প্রায় অসম্ভব। তাই ফেসবুক অ্যাডভার্টাইজিং হলো এমনি একটি বিজনেস স্ট্রাটেজি যা ছাড়া ব্যবসার সফলতা ভাবা কঠিন।

আপনার পণ্য/সেবার মান এবং সিলেকশন যদি ঠিকঠাক থাবে এবং কাস্টমারের কাইটেরিয়াগুলো ম্যাচ করে তাহলে তৎক্ষণাৎ আপনি ফেসবুক অ্যাডভার্টাইজিং এর সুফলতা পেয়ে থাকবেন।

ফেসবুক অ্যাডভার্টাইজিং এর ক্ষেত্রে ব্যানার ডিজাইন থেকে শুরু করে অডিয়েন্স সিলেকশন পর্যন্ত প্রায় প্রতিটি ধাঁপে আলাদা আলাদা দক্ষতার প্রয়োজন।

ফেসবুকের অ্যাড ক্যাম্পেইন চালু করার ক্ষেত্রে সবচেয়ে লক্ষণীয় বিষয় হলো ফেসবুক অ্যাড রুলস্ ভায়োলেশন না করা।

যখন আপনি আপনার অ্যাডের জন্য লোকেশন, লিঙ্গ, আয়ের উৎস ইত্যাদি নির্দিষ্ট করে অডিয়েন্স সিলেকশন করে অ্যাড চালু করবেন তারপর আপনার সকল নিয়ন্ত্রন প্রায় ফেসবুকের হাতে

আরও কোন প্রশ্ন থাকলে অথবা ফ্রি কনসাল্টেশন পেতে আমাদের সাথে যোগাযোগ করুন।